• বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:১৬ পূর্বাহ্ন |
  • Bangla Version
নিউজ হেডলাইন :
করোনা শনাক্তের হার ১৫ শতাংশের বেশি, মৃত্যু ১ আওয়ামী লীগ নেতার ভয়ে টয়লেটে প্রধান শিক্ষক, উদ্ধার করলো পুলিশ পশ্চিম রেলের জিএমকে লাঞ্ছিত করলেন নারী যাত্রী নোয়াখালীতে ২ মাদক কারবারি গ্রেফতার গাজীপুরে প্রতারক চক্রের তিনজন গ্রেফতার চাঁদপুরে জালিয়াতি চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় গাঁজা গাছসহ আটক ১ দিনাজপুরে ইসলামী আন্দোলনের জেলা সম্মেলন কুষ্টিয়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্পের নির্মাণাধীন ৩ ঘর ভাঙল দুর্বৃত্তরা যশোরে অভয়নগরে রাকিবুল হত‍্যা মামলার একজনকে অস্ত্রসহ আটক করেছেডিবি পুলিশ  রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী একনয়– জাকির সিকদার যশোরে বিষাক্ত স্পিরিট পানে  ৩ জনের  মৃত‍্যুর ঘটনায় যশোর র‌্যাব-৬, ০৫ জনকে গ্রেফতার জেল ও জরিমানাসহ সাজা প্রদান  যশোর অভয়নগরে অনাদী হত‍্যা মামলায় ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে আদালত প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব হলেন মিনা বেলজিয়ামের রানী খুলনার দাকোপে প্রকল্প পরিদর্শনে যাবেন কাল ডেঙ্গু : ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৭ জন

নয়াপল্টনে সরকারের ফ্যাসিবাদী আচরণের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে

বিশেষ প্রতিনিধি বিএনপির ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশকে কেন্দ্র করে সর্বশেষ রাজনৈতিক পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে গণতন্ত্র মঞ্চ। সংবাদ সম্মেলনে গণতন্ত্র মঞ্চের অন্যতম নেতা ও নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর বর্বর পুলিশি হামলা, গণ গ্রেপ্তার, গুলি করে হত্যা এবং সভাসমাবেশের বাঁধা প্রদান সরকারের চূড়ান্ত ফ্যাসিবাদী আচরণের বহিঃপ্রকাশ। সরকার গণ আন্দোলন দমাতে সর্বশক্তি প্রয়োগ করছে। ‘

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডস্থ বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে সর্বশেষ রাজনৈতিক পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে গণতন্ত্র মঞ্চ আয়োজিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনিসংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘সরকার ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখার লক্ষ্যে পুলিশ এবং দলীয় ক্যাডারদের দিয়ে বিরোধী দলের নিরীহ নেতাকর্মীদের উপর সশস্ত্র হামলা চালাচ্ছে। আগামী ১০ ডিসেম্বর সমাবেশকে কেন্দ্র করে গতকাল বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর নৃশংস হামলা চালিয়ে সরকার ভয়াবহ, ভীতিকর ও উদ্বেগজনক পরিস্থিতি তৈরি করেছে। এটি সরকারের চূড়ান্ত ফ্যাসিবাদী আচরণের বহিঃপ্রকাশ। অবৈধ ক্ষমতা হারানোর ভয়ে দিশেহারা হয়ে সরকার গণ আন্দোলন দমনের জন্য সর্বশক্তি প্রয়োগ করছে।যুগপৎ লড়াইয়ের মাধ্যমে ক্ষমতাসীন সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করতে হবে বলে মন্তব্য করেন মান্না। তিনি বলেন, ‘আমরা আগামী ১০ ডিসেম্বর বিএনপির গণসমাবেশের প্রতি সমর্থন জানাচ্ছি। উস্কানিমূলক আচরণের মধ্যে দিয়ে সরকার শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিকে সংঘাতের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এর দায় সম্পূর্ণভাবে সরকারকে নিতে হবে। দখলদার, খুনি, ভোট ডাকাত সরকারের বিরুদ্ধে বিএনপিসহ অন্যান্য বিরোধী রাজনৈতিক শক্তির সাথে যুগপৎ বৃহত্তর গণ আন্দোলন গড়ে তুলবে গণতন্ত্র মঞ্চ।সংবাদ সম্মেলনে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘বিরোধীদলের আওয়ামীলীগের হত্যা-জুলুম ইতিহাসে নিকৃষ্টতম অধ্যায়ের জন্ম দিয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকার পুলিশ-প্রশাশনকে ব্যবহার করে দমন-পীড়ন, নির্যাতন করতেই থাকবে। সেই নিপীড়ন মোকাবিলা করে অতীতে জনগণ জয়লাভ করেছে, ভবিষ্যতেও করবে। স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লড়াই অব্যাহত রাখতে হবে।সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ূম, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সভাপতি শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলুসহ প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.