• বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৪৯ পূর্বাহ্ন |
  • Bangla Version
নিউজ হেডলাইন :
করোনা শনাক্তের হার ১৫ শতাংশের বেশি, মৃত্যু ১ আওয়ামী লীগ নেতার ভয়ে টয়লেটে প্রধান শিক্ষক, উদ্ধার করলো পুলিশ পশ্চিম রেলের জিএমকে লাঞ্ছিত করলেন নারী যাত্রী নোয়াখালীতে ২ মাদক কারবারি গ্রেফতার গাজীপুরে প্রতারক চক্রের তিনজন গ্রেফতার চাঁদপুরে জালিয়াতি চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় গাঁজা গাছসহ আটক ১ দিনাজপুরে ইসলামী আন্দোলনের জেলা সম্মেলন কুষ্টিয়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্পের নির্মাণাধীন ৩ ঘর ভাঙল দুর্বৃত্তরা যশোরে অভয়নগরে রাকিবুল হত‍্যা মামলার একজনকে অস্ত্রসহ আটক করেছেডিবি পুলিশ  রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী একনয়– জাকির সিকদার যশোরে বিষাক্ত স্পিরিট পানে  ৩ জনের  মৃত‍্যুর ঘটনায় যশোর র‌্যাব-৬, ০৫ জনকে গ্রেফতার জেল ও জরিমানাসহ সাজা প্রদান  যশোর অভয়নগরে অনাদী হত‍্যা মামলায় ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে আদালত প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব হলেন মিনা বেলজিয়ামের রানী খুলনার দাকোপে প্রকল্প পরিদর্শনে যাবেন কাল ডেঙ্গু : ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৭ জন

তথ্য হালনাগাদে টাকা না দেওয়ায় নারীর আঙুল ভাঙলেন ইউপি উদ্যোক্তা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার রূপসী ইউনিয়নে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তথ্য হালনাগাদ করতে এসে চাহিদামতো ৫০০ টাকা না দেওয়ার প্রতিবাদ করেন উপকারভোগী শিল্পি আক্তার। এ সময় ইউপি উদ্যোক্তা নিজাম উদ্দিনের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে রড দিয়ে ওই নারীর মাথায় ও শরীরে আঘাত করেন তিনি। এতে শিল্পির ডান হাত মারাত্মক জখম হয় ও দুটি আঙুল ভেঙে যায়।

ভুক্তভোগী উপকারভোগী নারী রূপসী ইউনিয়নের ঘোমগাঁও গ্রামের লোকমান হোসেন মল্লিকের স্ত্রী। এ সময় স্ত্রীকে বাঁচাতে গেলে লোকমানও মারাত্মক আহত হন। পরে নিজামকে ঘেরাও করে অবরুদ্ধ করে রাখেন স্থানীয়রা। কিন্তু পরে তিনি পালিয়ে যান। এ ঘটনায় শিল্পির স্বামী ফুলপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ছয়-সাত বছর ধরে রূপসী ইউনিয়নের উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ করেন নিজাম উদ্দিন। একটি বেসরকারি ব্যাংকের এজেন্টও তিনি। ইউনিয়নের উপকারভোগীদের বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, জন্মনিবন্ধন, অনলাইনে তথ্য হালনাগাদসহ বিভিন্ন কাজ করেন তিনি। এসব সেবায় উপকারভোগীদের কাছ থেকে ৪০০-৫০০ টাকা করে নেন।  অবৈধভাবে এসব কাজ করে অনেক সম্পক্তির মালিক তিনি। তার এ অবৈধ কাজের অনুসন্ধান নিয়ে কালের কণ্ঠে গত ৮ আগস্ট ‘তথ্য হালনাগাদে টাকা আদায়’ শিরোনামে একটি খবর প্রকাশিত হয়।আহত শিল্পির স্বামী লোকমান বলেন, ‘১০০ টাকার বেশি কেমনে দিমু’ এ কথা বলার সাথে সাথে আইডি কার্ড ফেলে আমার স্ত্রীকে লোহার রড দিয়ে মারতে থাকে সে। এ সময় লোকজন না থাকলে স্ত্রীকে মেরেই ফেলত সে।সেখানে থাকা ফরিদ উদ্দিন, বকুল মিয়া, মাহবুবসহ অনেক উপকারভোগী বলেন, নিজাম উদ্দিনের অফিসে সবসময় লোহার রড, বাঁশের লাঠি থাকে। উপকারভোগীরা এতে আতঙ্কে থাকলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এ বিষয়ে কোনো দৃষ্টি নেই।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জমির উদ্দিন বলেন, উদ্যোক্তা নিজাম উদ্দিনের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের জন্য মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। একজন উদ্যোক্তার কার্যালয়ে লোহার রড ও লাঠি রাখা দুঃখজনক। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান ও কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।অভিযোগের বিষয়ে নিজাম উদ্দিন আকন্দ অস্বীকার করে বলেন, সেবা নিতে এসে তারা নিজেরাই মারামারি করে। এ কাজে আমি জড়িত না।স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহ্ সুলতান চৌধুরী চিকিৎসার জন্য ঢাকা থাকায় মোবাইলে তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

ফুলপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আলমামুন বলেন, এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। তদন্তসাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.