• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৩:৪১ পূর্বাহ্ন |
  • Bangla Version
নিউজ হেডলাইন :
করোনা শনাক্তের হার ১৫ শতাংশের বেশি, মৃত্যু ১ কালিয়াকৈরে কলেজছাত্র হত্যাকারীদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন টাঙ্গাইলে নদীর পানি কমলেও তীব্র হচ্ছে ভাঙন গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়ার মুক্তির লক্ষ্যে সবাই ঐক্যবদ্ধ: আমীর খসরু খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ‘দাওয়াই’ লাগবে: মির্জা আব্বাস কোটা পুনর্বহাল বৈষম্য প্রকট করবে: এবি পার্টি কাঁচা মরিচের ঝাল ও পেঁয়াজের ঝাঁজ দুটোই বেশি বাজারে আর্থিক তথ্য প্রকাশ আরও সীমিত করল কেন্দ্রীয় ব্যাংক সপ্তাহের শেষ দিনে বিক্রির চাপে সূচক ও লেনদেন কমেছে তীব্র লোডশেডিংয়ে ভুগছেন মফস্‌সলের ছোট উদ্যোক্তারা সুন্দরবনের যে ফলটি হরিণ-বানরের প্রিয়, কাজে লাগে মানুষেরও তিন ঘণ্টার ৬০ মিলিমিটার বৃষ্টিতে ডুবল ঢাকার অনেক রাস্তা তমাকে বিয়ে প্রসঙ্গে যা বললেন রাফী ‘সিনেমাটি না দেখলে মিস করবেন’, বললেন জয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস–কাণ্ডে গ্রেপ্তার আবেদ আলীর দেখা চান বাপ্পি চৌধুরী ‘অ্যানিমেল’-এর সাফল্যে কত পারিশ্রমিক বাড়ালেন তৃপ্তি

দেশি ফুলের নির্যাসে তৈরি সুগন্ধি সুবাস ছড়াচ্ছে বিদেশেও

লাইফ স্টাইল দেশি পাঁচটি ফুলের নির্যাস দিয়ে বিশ্বমানের সুগন্ধি তৈরি করছেন নাসরিন জামির। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে এই সুগন্ধি যাচ্ছে বিদেশে। দেশের গ্রাহকদের জন্য অনলাইনে সুগন্ধিটি বিক্রি করা হচ্ছে। এ ছাড়া বিভিন্ন সুপার শপেও এটি পাওয়া যায়।সাবেক রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জমিরের স্ত্রী নাসরিন জামির পেশায় ইন্টেরিয়র ডিজাইনার। দোলনচাঁপা, বেলি, গন্ধরাজ, রজনীগন্ধা ও জুঁই– এই পাঁচ সাদা ফুলের ঘ্রাণ থেকে নির্যাস নিয়ে সুগন্ধি তৈরি করছেন তিনি।

অন্দর নকশাবিদ থেকে কেন সুগন্ধি তৈরির উদ্যোগ নিলেন– এ প্রশ্নে নাসরিন জামির জানান, ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে নিজের অফিসে বসে এক ফরাসি বন্ধুর সঙ্গে কথা প্রসঙ্গে সুগন্ধির আলাপ ওঠে। বন্ধুটি তাঁকে জিজ্ঞেস করেন, ইন্টেরিয়র ডিজাইনের পাশাপাশি আর কী করতে চান। নাসরিনের উত্তর ছিল– সুগন্ধি বাজারে আনব। এরপর সুগন্ধি তৈরির প্রস্তুতি শুরু করে দেন সে বছরের ডিসেম্বরেই। টানা দুই বছর নিজেকে নিয়োজিত রাখেন সুগন্ধিসংক্রান্ত গবেষণায়।নাসরিন বলেন, বিভিন্ন দেশ ঘুরে এবং গবেষণা করে সুগন্ধি তৈরিতে দক্ষতা অর্জন করলেও দেশে এসে হতাশ হতে হয়। অনেক ঘুরেও দেশে তেমন ল্যাব ও কারখানা খুঁজে পাননি। এরপর মালয়েশিয়ার একটি কারখানায় তৈরি করেন পাঁচ রকমের সুগন্ধি। বাজারে নিয়ে আসেন সুগন্ধির বাংলাদেশি ব্র্যান্ড ‘জোনাকি’।

বাংলার ঐতিহ্যবাহী মসলিন কাপড়, নারীদের নানান প্রসাধনী এবং দেয়ালিকাও রয়েছে জোনাকি ব্র্যান্ডের। এসব পণ্য বিদেশি পর্যটকদের দৃষ্টিতে আনতে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের ছোট্ট একটি কক্ষে ফ্ল্যাগশিপ স্টোরও দিয়েছেন তিনি। নাসরিনের দাবি, দেশের ইউনিক পণ্য বিশ্বের কাছে পরিচিত করাই তাঁর এ উদ্যোগের লক্ষ্য।নাসরিন বলেন, বিদেশি ডেলিগেট যারা বাংলাদেশে আসেন, তাদের হাতে বাংলাদেশি একটি পণ্য ধরিয়ে দিতে চাই। সুগন্ধি মানুষের মনে ভালোবাসা তৈরি করে, মানুষের ব্যক্তিত্বের পরিচয়ও বহন করে। তাই আমি বাংলাদেশি ব্র্যান্ডের পণ্য হিসেবে তাদের হাতে সুগন্ধি তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করি। সে জন্য পাঁচতারকা হোটেলে ছোট পরিসরে হলেও একটি ফ্ল্যাগশিপ স্টোর দিয়েছি।জোনাকির মূল লক্ষ্য, বিদেশি ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা। তবে দেশীয় গ্রাহকদের জন্যও অনলাইনে (https://jonaki.com.bd/) সুগন্ধি বিক্রি করছে প্রতিষ্ঠানটি। 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.