• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০২:০৪ পূর্বাহ্ন |
  • Bangla Version
নিউজ হেডলাইন :
করোনা শনাক্তের হার ১৫ শতাংশের বেশি, মৃত্যু ১ কালিয়াকৈরে কলেজছাত্র হত্যাকারীদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন টাঙ্গাইলে নদীর পানি কমলেও তীব্র হচ্ছে ভাঙন গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়ার মুক্তির লক্ষ্যে সবাই ঐক্যবদ্ধ: আমীর খসরু খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ‘দাওয়াই’ লাগবে: মির্জা আব্বাস কোটা পুনর্বহাল বৈষম্য প্রকট করবে: এবি পার্টি কাঁচা মরিচের ঝাল ও পেঁয়াজের ঝাঁজ দুটোই বেশি বাজারে আর্থিক তথ্য প্রকাশ আরও সীমিত করল কেন্দ্রীয় ব্যাংক সপ্তাহের শেষ দিনে বিক্রির চাপে সূচক ও লেনদেন কমেছে তীব্র লোডশেডিংয়ে ভুগছেন মফস্‌সলের ছোট উদ্যোক্তারা সুন্দরবনের যে ফলটি হরিণ-বানরের প্রিয়, কাজে লাগে মানুষেরও তিন ঘণ্টার ৬০ মিলিমিটার বৃষ্টিতে ডুবল ঢাকার অনেক রাস্তা তমাকে বিয়ে প্রসঙ্গে যা বললেন রাফী ‘সিনেমাটি না দেখলে মিস করবেন’, বললেন জয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস–কাণ্ডে গ্রেপ্তার আবেদ আলীর দেখা চান বাপ্পি চৌধুরী ‘অ্যানিমেল’-এর সাফল্যে কত পারিশ্রমিক বাড়ালেন তৃপ্তি

গরমে সুস্থ থাকতে মেনে চলুন কিছু টিপস

লাইফ স্টাইল প্রচণ্ড রোদে বের হওয়া খুব কঠিন হয়ে পড়েছে। অতিরিক্ত তাপের কারণে অনেকেই  দুর্বলতা, ক্লান্তি এবং অলসতা অনুভব করতে শুরু করেছন। কখনও কখনও, তাপ এবং আর্দ্রতার কারণে, অনেকের মাথা ঘোরা এবং বমি হতে পারে। এছাড়াও, প্রখর সূর্যালোকের কারণে, ত্বক সম্পর্কিত সমস্যা যেমন মাথাব্যথা, জলশূন্যতা, রোদে পোড়া এবং ট্যান হতে পারে।

এ কারণে গ্রীষ্মে সুস্থ থাকতে কিছু বিষয় মাথায় রাখা খুবই জরুরি। গরমে হিট স্ট্রোকের মতো সমস্যা থেকে নিরাপদ থাকতে যা করতে পারেন-

শরীর হাইড্রেটেড রাখুন : গরমের সময় শরীরে যেন পানির অভাব না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। বেশি বেশি পানি পান করুন কারণ কম পানি পান করলে শরীর পানিশূন্য হতে পারে। অনেকেরই পানি কম খাওয়ার অভ্যাস আছে বা পানি খেতে ভুলে যান। এমন পরিস্থিতিতে ডিহাইড্রেশনের কারণে অনেক স্বাস্থ্য সমস্যায় পড়তে হতে পারে। এ কারণে গরমে যতটা সম্ভব পানি পান করুন। বাইরে যাওয়ার সময় বা ভ্রমণের সময় সর্বদা আপনার সঙ্গে পানির বোতল রাখুন। লাচ্ছি, লেবু পানি, বাটারমিল্কও  শরীরকে হাইড্রেট করতে সাহায্য করে।

বাইরে যাওয়ার সময় সাবধানতা : প্রখর সূর্যালোকে অকারণে বাইরে যাওয়া এড়িয়ে চলুন। জরুরি কাজ থাকলেই রোদে বের হবেন এবং আপনি যদি রোদে বের হন তবে আপনাকে অবশ্যই কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। যেমন বাইরে যাওয়ার সময় হালকা কাপড়, হালকা রঙের জামা, ঢিলেঢালা, সুতির কাপড় পরা উচিত। চশমা, ছাতা, টুপির মতো জিনিস নিয়ে বাইরে বের হন। এছাড়াও মনে রাখবেন, প্রচণ্ড গরমের শিশুদের দিনের বেলা খেলার জন্য বাইরে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে হবে।

খাবারের প্রতি বিশেষ যত্ন নিন: বাইরের ভাজা, মসলাদার ও বাসি খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। কারণ সকালের খাবারে অনেকেই বাসি খাবার খেয়ে থাকেন। তবে গ্রীষ্মের মৌসুমে রাতের খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন। তরমুজ, শসা জাতীয় খাবার খান। এর সঙ্গে, কোমল বা কার্বনেটেড পানীয় পান করা থেকে বিরত থাকুন। মসলাদার এবং তৈলাক্ত খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন। 

সানস্ক্রিন ব্যবহার: গরমে বাইরে যাওয়ার সময় সানস্ক্রিন লাগাতে ভুলবেন না। কারণ সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মির কারণে ত্বক নষ্ট হয়ে যেতে পারে। সূর্যের আলোতে ত্বকের ট্যান এবং রোদে পোড়া সমস্যা হতে পারে। তাই বাইরে যাওয়ার সময় অবশ্যই সানস্ক্রিন লাগান। মনে রাখবেন সানস্ক্রিন লাগানোর ১৫ মিনিট পর ঘর থেকে বের হওয়া উচিত।

দেরি করবেন না: কারণ অকারণে বাইরে রোদে ঘোরাঘুরি হিট স্ট্রোকের কারণ হতে পারে। একই সঙ্গে স্বাস্থ্য নষ্ট করতে পারে। তাই গরমে বিশেষ করে দুপুরে অপ্রয়োজনে বাইরে বের হবেন না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.