• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন |
  • Bangla Version
নিউজ হেডলাইন :
করোনা শনাক্তের হার ১৫ শতাংশের বেশি, মৃত্যু ১ নিম্নচাপ এগোচ্ছে বাংলাদেশের দিকে, শনিবার রূপ নিতে পারে ঘূর্ণিঝড়ে কোপার আগে কোস্টারিকা থেকে অবসর কেইলর নাভাসের শেষ পর্যন্ত জাভিকে বরখাস্তই করল বার্সা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হার নিয়ে সাকিব, ‘টি-টোয়েন্টিতে ছোট-বড় দল বলে কিছু নেই’ ফিফার জরিমানা নিয়ে বিবৃতিতে যা বললেন সালাম মুর্শেদী পিওলিকে বরখাস্ত করল এসি মিলান কয়েক ঘণ্টা পর মেরিল–প্রথম আলোর জমকালো আসর সবচেয়ে বাজে পরামর্শ নিয়ে মুখ খুললেন জ্যাকুলিন নতুন লুকে আনুশকা! কানে নিজের ছবির প্রিমিয়ারে থাকবেন ইরানের দণ্ডপ্রাপ্ত সেই নির্মাতা যে কারণে বিয়ে করতে চান না, জানালেন প্রভাস বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের মতবিনিময় মহাসড়ক যেন ময়লার ভাগাড় কুড়িগ্রামে মাদকসহ যুবক গ্রেফতার বিরামপুরে শ্রেণিকক্ষে যৌন হয়রানি, ইউএনও কার্যালয়ে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের

ঈদের আগে প্রাণবন্ত ত্বক পেতে

লাইফ স্টাইল ঈদের আর বাকী নেই। কেনাকাটা, রোজার ব্যস্ততা, অফিস- সব মিলিয়ে অনেকেই ত্বকের ঠিকমতো যত্ন নিতে পারেন না। এমনিতে রোজায় খাওয়াদাওয়া, ঘুমের সময় কিছুটা পরিবর্তন হওয়ায় শরীরের পাশাপাশি ত্বকের উপর যথেষ্ট প্রভাব পড়ে। রোজার মধ্যে অনেকে আবার পর্যাপ্ত পানিও পান করেন না। ফলে ত্বক আর্দ্রতা হারায়। ঈদের দিন সুন্দর ও সজীব ত্বক পেতে আগে থেকেই যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।ঈদের আগে ত্বকের প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলেছেন রাজিয়াস মেকওভার স্টুডিওর স্বত্বাধিকারী ও রূপ বিশেষজ্ঞ রাজিয়া সুলতানা।

যেভাবে নেবেন ত্বকের যত্ন

ঈদের আগে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর সাথে সাথে ত্বকের আদ্রতার দিকেও নজর দিতে হবে। এখন থেকেই ভালো মশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। বাইরে বের হবার ১০-১৫ মিনিট আগেই অবশ্যই সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন। সান বারন থেকে বাঁচতে হলে সানব্লক ও সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে। চোখের জন্য রাখতে হবে সানগ্লাস। ত্বক ভালো রাখার জন্য এ সময়টায় বেশি বেশি শাকসবজি ও পানি পান করতে হবে। 
ফেসিয়ালের ক্ষেত্রে অ্যালোভেরা, ভিটামিন ই ও হারবাল ফেসিয়াল করলে ত্বকের আদ্রতা বজায় থাকবে। যাদের ত্বক তৈলাক্ত তারা একটু বেশি সচেতন হবেন। কারণ তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণ এবং সানবার্ন বেশি হয়। এ সময় তারা গ্রিন টি অ্যালোভেরা যুক্ত ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করবেন । চাইলে হাইড্রোফেসিয়াল করাতে পারেন। তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে শসা রস ব্যবহার খুব উপকারী। শসার রসে মুলতানি মাটি, চন্দনের গুঁড়া মিশিয়ে মুখে হাতে ও পায়ে ত্বকে লাগিয়ে ১০ মিনিট পর ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বক উজ্জ্বলতা পাবে। 

ত্বকের যত্নে পেঁপে অনেক উপকারী। সানবার্ন যায় এই সময়টা। সেক্ষেত্রে পাকা পেঁপে চটকে ১৫ থেকে ২০ মিনিট মুখ হাত পায়ে লাগিয়ে রাখুন। স্বাভাবিক পানি দিয়েই ধুয়ে ফেলুন। এতে সানবারন অনেকটা কমে যাবে। সপ্তাহে দুবার এটা করতে পারেন। তবে সব ধরনের পরিচর্যা বাসায় করা যায় না। তাই ঈদের আগে পার্লারে গিয়ে ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখে এমন ফেসিয়াল করে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে চন্দন ফ্রুটস এলোভেরা ভিটামিন ই এবং হাইড্রোফেসিয়াল খুবই কার্যকর হবে। 

হাত-পায়ের যত্ন
ঈদের দিন মুখের পাশাপাশি যদি হাত পা সুন্দর দেখায় তবে ভালো লাগাটা আরো বেড়ে যায়। এজন্য করে নিতে পারেন পেডিকিউর এবং মেনিকিউর। এ প্রসঙ্গে রূপ বিশেষজ্ঞ রাজিয়া সুলতানা জানান, অনেক রকম ভাবে পেডিকিউর মেনিকিউর করা যায়। নরমাল পেডিকিউর মেনিকিউর, ফ্রেঞ্চ অ্যাটিচুড মেনিকিউর, পারাফিন পেডিকিউর মেনিকিউর, ক্রিস্টাল পেডিকিউর মেনিকিউর, ডিলাক্স পেডিকিউর মেনিকিউর। বিভিন্ন ধাপ পার করে বিভিন্ন পেডিকিউর মেনিকিউর করতে হয়।শুরুতেই হাত ও পায়ের নেলপালিশ রিমুভ করে নিবেন। এরপর একটি পাত্রে পরিমাণ মতো গরম পানি ও একটু শ্যাম্পু মিশিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট হাত পা ভিজে রাখতে হবে। এরপর কিউটিক্যাল ক্লিন করতে হবে। নেল কাটিং ফাইলিং করে স্ক্রাবিং করতে হবে। যাদের পায়ের নিচে মরা চামড়া বেশি তাদের পেডি স্টোন দিয়ে ঘষে ঘষে পরিষ্কার করতে হবে। এরপর আসা যাক ম্যাসাজের দিকে। ১৫ থেকে ২০ মিনিট ম্যাসাজ করতে হবে। ম্যাসাজ হয়ে গেলে মাস্ক লাগাতে হবে। পেডিকিওর মেনিকিওরের ক্ষেত্রে মাস্ক রাখতে হবে ১৫ থেকে ২০ মিনিট। এরপর নেইল বাফারিং করে ময়েশ্চারাইজার লাগাতে হবে। নরমাল পেডিকিউর মেনিকিউর সাধারণত রিল্যাক্সিং এবং ক্লিনিং এর জন্য করে থাকে। প্যারাফিন পেডিকিউর মেনিকিওর করতে পারেন ত্বকের মসৃণতা ও রিল্যাক্সিং এর জন্য। আর ট্যান রিমুভিং হাত ও পায়ের যত্নের জন্য করা হয়ে থাকে আন ইভেন টোনকে ইভেন টোন করার জন্য। ক্রিস্টাল পেডিকিউরি মেনিকিউর পায়ের ব্যথা এবং স্কিন সুন্দর করার জন্য খুবই কার্যকরী। যাদের পা ঘামে তারা বার্থ সল্ট ও ক্রিস্টাল পেডিকিউর মেনিকিউর করে নিতে পারেন ঈদের আগ দিয়ে। 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.