• বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১০:০৫ পূর্বাহ্ন |
  • Bangla Version
নিউজ হেডলাইন :
ফয়সাল হত্যা ছিল ১০ মিনিটের ‘কিলিং মিশন’ উসকানির অভিযোগে আজমির শরিফের খাদেম গ্রেপ্তার প্রবল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত ভারতের বাণিজ্যনগরী মুম্বাই শিকাগোতে কুচকাওয়াজে গুলি, সন্দেহভাজনের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবি, ২২ জনের প্রাণহানি গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে দেশে চারজনের মৃত্যু হয়েছে জাদুঘরে পাঠানো লোড শেডিং ফিরল কেন? প্রশ্ন মোশাররফের ধর্মীয় শিক্ষা তুলে দেওয়া হবে না, থাকবে : শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি হতে চান এমপিরা, বাধা অপসারণের সুপারিশ রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে ইসির সংলাপ শুরু ১৭ জুলাই ইভিএমে বিএনপি কেন ভয় পায়, জানালেন তথ্যমন্ত্রী শুল্ক না দিয়েই ২৭ কোটি টাকার রোলস রয়েলস গাড়ি ছাড়! ‘বিদ্যুৎ নিয়ে সরকারের আত্মতুষ্টির খেসারত দিচ্ছে জনগণ’ ক্রেডিট কার্ডে ঈদের শপিং মানুষের কষ্ট লাঘবে লোডশেডিংয়ের রুটিন করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

অধ্যাপক জাফর ইকবালকে হত্যাচেষ্টায় একজনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষাবিদ, লেখক এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে হত্যাচেষ্টা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন ও একজনের ৪ বছরের সাজা দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও এ মামলায় ৪ জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) সিলেটের সন্ত্রাসবিরোধী ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুহাম্মদ নূরুল আমীন বিপ্লব এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, এ মামলার ৬২ সাক্ষীর মধ্যে ৩৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণের মাধ্যমে গত ১০ মার্চ সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করেন আদালত। এরপর গত ২১ ও ২২ মার্চ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়। মামলার প্রধান আসামি ফয়জুল হাসান আগে থেকেই কারাগারে রয়েছেন। যুক্তিতর্কের শেষ তারিখে বাকি ৫ আসামির জামিন স্থগিত করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আজ সব আসামির উপস্থিতিতে মামলার রায় ঘোষণা করা হয়।

২০১৮ সালের ৩ মার্চ বিকেল সাড়ে ৫টায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের হ্যান্ডবল গ্রাউন্ডসংলগ্ন মুক্তমঞ্চে এক অনুষ্ঠান চলাকালে মঞ্চে বসা অধ্যাপক জাফর ইকবালকে পেছন থেকে মাথায় ছুরিকাঘাত করে মো. ফয়জুল হাসান নামে এক তরুণ।

হামলাকারী ফয়জুলকে তখনই আটক করেন উপস্থিত ছাত্র-শিক্ষকরা। তারপর তাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এদিকে গুরুতর আহত অধ্যাপক জাফর ইকবালকে প্রথমে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও পরবর্তীতে ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঘটনার পরদিন শাবিপ্রবির রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেন বাদী হয়ে সিলেটের জালালাবাদ থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করে জালালাবাদ থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম। তদন্ত শেষে ওই বছর ৬ মে ফয়জুলকে প্রধান আসামি করে মোট ৬ জনের বিরুদ্ধে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম।

এ মামলার অপর আসামিরা হলেন, ফয়জুলের বন্ধু মো. সোহাগ মিয়া, বাবা হাফেজ মাওলানা আতিকুর রহমান, মা মিনারা বেগম, মামা ফজলুর রহমান ও ভাই মো. এনামুল হাসান।

অভিযোগপত্রের পর ওই বছর ৪ অক্টোবর এ ৬ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গঠন করেন আদালত। পরে ২০২০ সালে সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠিত হলে মামলাটি এ ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নামাজের সময় সূচি

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫২
  • ১২:০৭
  • ৪:৪২
  • ৬:৫৪
  • ৮:২০
  • ৫:১৫